বই : কুরআন ও সহীহ হাদীসের আলোকে তালাক্ব -ফ্রী ডাউনলোড

0
2906

প্রকাশনায়: মুহাম্মাদ মুকাম্মাল হক আল-ফাইযী | পৃষ্ঠাঃ ১৭৯ | সাইজঃ ৬ মেগাবাইট

সংক্ষিপ্ত বিবরণ:
আমাদের সমাজে তালাক্ব বিড়ম্বনার কথা কে না জানে, তালাক্ব নিয়ে অনেক ঝামেলা, অশান্তি সৃষ্টি হয়। কতিপয় মৌলবী সাহেব তালাক্বের ফাতওয়া দিয়ে পরিবেশ গরম করে তোলেন, শেষ পর্যন্ত কোট পর্যন্ত গড়ায়।
তালাকের মাসআলায় দ্বন্দ্ব থাকায় ভিন্ন ভিন্ন ফাতওয়া আসে, কেউ বলে বিবি হারাম, আবার কেউ বলে হালাল। বিষয়টি যখন বিজাতীয়দের কানে পৌঁছায় তখন তাদের মুখ থেকে অসংগত কথা শুনা যায়। তাতে তাদের দোষ দেয়া যায় না কারণ তারা যেভাবে শোনে সেইভাবেই বলে।
সবচেয়ে বেদনাদায়ক অবস্থা হয় তখন, যখন কেউ নিজ বিবিকে রাগের মাথায় তালাক্ব তালাক্ব বলে ফেলে, ক্রোধ শীতল হয়ে এলে লজ্জিত হয়ে কোন রাস্তা খুঁজে না পেষে অবশেষে ইমাম সাহেবের নিকট গিয়ে ফাতাওয়া চায়, ইমাম সাহেব তখন বিবি হারামের ফাতওয়া দেন এবং বলেন “হালালা (হিল্লা)” ছাড়া উপায় নেই অর্থাৎ সাময়িক ভাবে অন্য ব্যক্তির সাথে বিবাহ ছাড়া কোন উপায় নেই, এক রাতের জন্য অন্য ব্যক্তির সাথে বিবাহ দিয়ে হালাল করতে হবে!! এ কারণে ইসলাম বিরোধীরা ইসলামী বিধানে কাদা ছুড়তে সুযোগ পায় এবং বলে, মুসলমানরা মেয়ে নিয়ে খেলা করে।


 তাই এই বিধানের দর্শন ও তাৎপর্য কি তা আমাদের জানা ও অপরকে জানানো একান্ত প্রয়োজন। আর এ বইয়ে এ বিষয়ে সঠিক তথ্য আলোচনা করা হয়েছে।

কুরআন ও সহীহ হাদীসের আলোকে তালাক্ব QA Server
কুরআন ও সহীহ হাদীসের আলোকে তালাক্ব QA Server

কুরআন ও সহীহ হাদীসের আলোকে তালাক্ব -MediaFire
কুরআন ও সহীহ হাদীসের আলোকে তালাক্ব -MediaFire

বইটি ভালো লাগলে অবশ্যই একটি Hard Copy সংগ্রহ করে অথবা লেখক বা প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে সৌজন্য মূল্য প্রদান করে সহযোগিতা করুন।

Print Friendly, PDF & Email


'আপনিও হোন ইসলামের প্রচারক'
প্রবন্ধের লেখা অপরিবর্তন রেখে এবং উৎস উল্লেখ্য করে
আপনি Facebook, Whatsapp, Telegram, ব্লগ, আপনার বন্ধুদের Email Address সহ অন্য Social Networking ওয়েবসাইটে শেয়ার করতে পারেন, মানবতার মুক্তির লক্ষ্যে ইসলামের আলো ছড়িয়ে দিন। ইসলামি দা’ওয়াহ্‌র ৮০ টিরও বেশী উপায়! বিস্তারিত জানতে এইখানে ক্লিক করুন "কেউ হেদায়েতের দিকে আহবান করলে যতজন তার অনুসরণ করবে প্রত্যেকের সমান সওয়াবের অধিকারী সে হবে, তবে যারা অনুসরণ করেছে তাদের সওয়াবে কোন কমতি হবেনা" [সহীহ্ মুসলিম: ২৬৭৪]

দ্বীনী খিদমায় অংশ নিন

আপনার মন্তব্য লিখুন